1. noorazman152@gmail.com : নূর আজমান : নূর আজমান
  2. asifiqballimited@gmail.com : Asif Iqbal : Asif Iqbal
  3. khansajeeb45@gmail.com : সজিব খান : সজিব খান
  4. naeemnewsss@gmail.com : সাকিব আল হেলাল : সাকিব আল হেলাল
  5. khoshbashbarta@gmail.com : ইউনুছ খান : ইউনুছ খান
যৌতুক একটি নির্যাতনমূলক এবং জঘন্য কুপ্রথা - খোশবাস বার্তা
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন
খোশবাস বার্তা

যৌতুক একটি নির্যাতনমূলক এবং জঘন্য কুপ্রথা

মোঃ মাসুম বিল্লাহ | শিক্ষার্থী, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদরাসা, চট্টগ্রাম
  • প্রকাশিতঃ সোমবার, ২২ জুন, ২০২০
  • ৭৯৮ বার পঠিত
যৌতুক

যৌতুক প্রথা একটি নির্যাতনমূলক এবং জঘন্য কুপ্রথা। যৌতুক বা পণ হল কণ্যার বিবাহে পিতামাতার সম্পত্তির হস্তান্তর প্রক্রিয়া।

‘যু’ ধাতু থেকে নিষ্পন্ন যুত শব্দের অর্থ হলো যুক্ত ; যৌতুক অর্থ হলো পাত্র -পাত্রীর যুক্ত হওয়ার সময়ে অর্থাৎ বিয়ের সময় পাত্রীর জন্য যা কিছু মূল্যকান সামগ্রী দেয়, তা যৌতূক।

(১) তবে কন্যাপক্ষ বর বা বরপক্ষকে স্বেচ্ছায় খুশীমনে উপহার, হাদিয়া স্বরুপ প্রদান করাকে জেহেয বলা হয়

(২) কিন্তু শর্তারোপ ও বাধ্যতামূলক কন্যাপক্ষ থেকে কিছু গ্রহণ করা শরিয়ত গর্হিত হারাম। বর্তমানে যৌতুক একটি সামাজিক ব্যাধি। হিন্দু আইনে যৌতুককে নারীর সম্পত্তির মূল বলা হয়। হিন্দু সমাজে নারীরা পুরুষদের মতো একইভাবে সম্পত্তির উত্তারিধকারী হতো না। তাই অনেক আগে থেকেই হিন্দু সমাজে নারীদেরকে বিয়ের সময় যৌতুক দেবার প্রচলন ছিল। কালক্রমে তা বিয়ের পণ হিসেবে আভির্ভূত হয়ে দাঁড়ায়

(৩) আমাদের সমাজের ছেলেরা একটা ভিন্ন ধরণের মানসিকতা নিয়ে বড় হচ্ছে। যৌতুক নেওয়াটা তারা এক ধরণের অধিকার বলে নিয়েছে। যৌতুক প্রথা সমাজে আর্থ-সামাজিক ব্যাধিরুপে আত্মপ্রকাশ করেছে। এটি একটি নির্লজ্জ ব্যাপার। ইসলামে এর স্থান নেই। কনের পক্ষ হতে জোর করে সম্পদ আদায় করে থাকেন বরপক্ষ। জোরপূর্বক অন্যান্য দাবি আদায় করার ক্ষেত্রে মহান আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন:- আর যে ব্যক্তি সীমা লঙ্ঘন ও জুলুম করে,অচিরেই তাকে আগুনে দগ্ধ করব। (সূরা নিসা :৩০)

(৪) কন্যার জীবনধারা দুটো ভাগে দু’জনের দায়িত্বে অর্পিত হয়। পবিত্র কুরআনের ভাষ্য অনুযায়ী বিবাহের পূ্র্ব পর্যন্ত পিতার ওপর মেয়েদের ভরণপোষণের দায়িত্ব রয়েছে (সূরা বাকারা :২৩৩)

(৫) আর বিয়ের পর থেকে আজীবন স্ত্রীর ভরণপোষণের দায়িত্ব স্বামীর ওপর। কিন্তু বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য স্ত্রীদের উপর অমানবিক অত্যাচার চলে। যৌতুক প্রদানে অপরাগতা প্রকাশ করার কারণে স্ত্রীকে এসিড মারা হচ্ছে, সংসার ভেঙ্গে যাচ্ছে, কতো নারী আত্মহত্যা করছে, কতো নারী হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন এইগুলোর সুনির্দিষ্টভাবে ডাটা এখন পর্যন্ত হয়নি। অশিক্ষিত সমাজের পাশাপাশি শিক্ষিত সমাজেও এ ব্যাধি পরিলক্ষিত হয়। এটি একটি নিরব ছিনতাই, চাঁদাবাজি এবং ভদ্রতার অন্তরালে অভদ্র আচরণ, কুসংস্কার ও সন্এাসী কর্মকাণ্ড।

১৯৮০ সালে সর্ব প্রথম যৌতুক প্রথা নিয়ে আইন হলেও কার্যকর হয়নি। যৌতুক বিরোধী আইন ২০১৮ সালে এই আইনের সংশোধন হয়েছে। বলা হয়েছে কেউ যৌতুকের দাবি করলে পাঁচ বছরের জেল বা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। আইনের পাঁচ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে :-কাউকে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য মিথ্যা মামলা দায়ের করলে, তারও সর্ব্বোচ্চ পাঁচ বছরের জেল থেকে সর্বনিম্ন ১ বছরের জেল বা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। এই আইনের অধীনে সংঘটিত অপরাধ আমলযোগ্য ও জামিন অযোগ্য হবে, তবে আপসযোগ্য হবে

(৬) যৌতুক প্রথা প্রতিরোধ করতে হলে আইনের সঠিক কার্যকর থাকতে হবে। এই জন্য সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে যারা যৌতুক নিয়ে বিয়ে করবে তাদেরকে সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে। গ্রাম,পাড়া-মহল্লায় সর্বস্তরের সমাজকর্মীদের দিয়ে যৌতুক প্রতিরোধ কমিটি গঠন করতে হবে। বিশেষ করে কাবিননামা ফরমে ‘যৌতুকের কোন দাবি নাই’ মর্মে আদালতগ্রাহ্য হলফ নামায় স্বাক্ষরদানের ধারা প্রবর্তনের দাবি সরকারের কাছে তুলে ধরতে হবে। দেশের সব জাতীয় সংবাদপত্র, বেতার, টিভি এবং দেশি চ্যানেলগুলোকে যৌতুক প্রতিরোধে যৌতুক বিরোধী টকশোর ব্যবস্থা করতে হবে। যৌতুক বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম রুপকার আল্লামা আবুল কাশেম নুরী মা: জি: আ: মতো সকল আলেম-ওলামা, ইমাম, খতিব ওয়াজের মধ্যে যৌতুকের ভয়াবহতা ও পরিণতি সর্ম্পকে জাতির নিকট তুলে ধরতে হবে। তাহলে ইনশা-আল্লাহ একদিন যৌতুক মুক্ত সোনার বাংলা গড়ে উঠবে।

 

সূত্রঃ- ১:- হাবিবুর রহমান প্রণীত ‘যার যা ধর্ম’ পৃষ্ঠা ২৯৫। ২ঃ-আল্লামা হাফেজ ওসমান গণি মা:জি:আ: প্রণীত নন্দিত নারী পৃষ্ঠা ৬৫। ৩ঃ-কাজি এবাদুল হক জানুয়ারি ২০১৩ যৌতুক :-ঢাকা এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশ ৪ঃ-আল কুরআন সূরা নিসাঃ-৩২ ৫ঃ-আল কুরআন সূরা বাকারা :-২৩৩ ৬ঃ-উইকিপিডিয়া।

খোশবাস বার্তা

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

অনলাইন জরিপ

চামড়াশিল্পের চিহ্নিত সমস্যাগুলো সমাধানে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে মনে করেন কি?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
corona safety
সত্বাধিকার © খোশবাস বার্তা ২০১৬- ২০২১
ডেভেলপ করেছেন : TechverseIT
themesbazar_khos5417